মৃত্যু ভয়ে মিতা আকরাম এর মন্ট্রিয়লে অবস্থান
এইদেশ ডেস্ক-, সোমবার, ফেব্রুয়ারি ১১, ২০১৩


২০০৬ সালের ১৬ মে পারিবারিক দ্বন্দের জের ধরে লন্ডন প্রবাসী বৃটিশ বাংলাদেশী নাগরিক ইফ্ফাত ইবনে মাহবুব নির্মমভাবে খনু হন সেনা কর্মকর্তা ক্যাপ্টেন ইফতেখার এলাহি শান্তর হাতে। এই চাঞ্চল্যকর হত্যাকে কেন্দ্র করে রংপুর শহরে মাহবুবের লাশ নিয়ে নিহতের পরিবার ও সাধারণ জনগর বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে। দেশ বিদেশের প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিড়িয়াতেও ঘটনাটি প্রচারিত হয় গুরুত্ব সহকারে। নিহতের ভাই রংপুর কোতায়ালী থানায় পাঁচজনকে আসামী করে হত্যামামলা দায়ের করেন।

দীর্ঘ সাক্ষ্য - প্রমান শেষে রংপুর আদালত ২০০৭ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারী অভিযুক্ত ৫জন আসামির মধ্যে ৩ জনকে দোষি সাব্যস্থ করে মৃত্যদন্ডের রায় ঘোষনা করে। দন্ড প্রাপ্তরা হলেন খন্দকার মাহমুদ এলাহি বিপ্লব, ক্যাপ্টেন খন্দকার ইফতেখার এলাহি (সান্ত) , মো: হোসেইন কবির পাভেল। এদিকে আসামী পক্ষ এই রায়ের বিপক্ষে উচ্চ আদালতে আপিল করলে দীর্ঘ দিন পর গত ২৩ জানুয়ারি ২০১৩ ইং বাদি পক্ষের অনুপস্থিতিতে উচ্চ আদালত খুনিদেরকে বেকসুর খালাস দিয়েছে বলে মৃত মাহবুবের ভগ্নি মিতা আকরাম এইদেশ সম্পাদককে জানান। এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে নিহত মাহবুবের পরিবার ভিত শংকিত ।

উল্লেখ্য- উম্মে মোমেনিন বিনতে মাহবুব ( মিতা আকরাম ) বর্তমানে কানাডার মন্ট্রিয়ল শহরে ভিত শঙ্কিত ও আতংকে দিনযাপন করছেন ।


প্রবাসী হত্যা